Breaking News
Home / সারাদেশ / চিলমারীতে সরকারিভাবে ধান ও চাল ক্রয়ে সুফল পাচ্ছে না কৃষক 
চিলমারীতে সরকারিভাবে ধান ও চাল ক্রয়ে সুফল পাচ্ছে না কৃষক 
চিলমারীতে সরকারিভাবে ধান ও চাল ক্রয়ে সুফল পাচ্ছে না কৃষক 

চিলমারীতে সরকারিভাবে ধান ও চাল ক্রয়ে সুফল পাচ্ছে না কৃষক 

এম.জি.ছরওয়ার:
চিলমারী (কুড়িগ্রাম) সংবাদদাতাঃ

কুড়িগ্রামের চিলমারীতে সরকারিভাবে ধান ও চাল ক্রয়ের নির্দেশনা থাকলেও সুফল বঞ্চিত রয়েছে এ উপজেলার কৃষকরা। জানা গেছে ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে এ উপজেলায় সরকারিভাবে ১৮৮ মে.টন ধান ও ১০৮৫ মে.টন চাল ক্রয়ের নির্দেশনা আসে। প্রকৃত কৃষকদের নিকট থেকে ধান ক্রয় করার নিয়ম থাকলেও তা তোয়াক্কা না করে মনগড়া ভূমিহীন কৃষকের নাম দেখিয়ে বরাদ্দ দেয়ায় প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। ফলে প্রকৃত কৃষকরা ইরি বোরো মৌসুমে সরকারিভাবে ধান ক্রয়ের সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। অপরদিকে চাল সংগ্রহ অভিযান গত ১সপ্তাহ আগে শুরু করলেও উপজেলার ৫২টি চাল কলের অধিকাংশগুলোই বন্ধ রয়েছে। সরেজমিনে দেখা গেছে, উপজেলার দু-একটি চালকল সচল থাকলেও অধিকাংশ চালকলগুলো বন্ধ রয়েছে। উপজেলা খাদ্য অফিস সূত্রে জানা গেছে, চালকল মালিকরা সর্বনিম্ন ১২ মে.টন থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ২৯ মে.টন পর্যন্ত চাল সরবরাহের বরাদ্দ পেলেও তাদের চাল কল গুলো বন্ধ রেখে উপজেলার বাহির থেকে বরাদ্দকৃত চাল ক্রয় করে এনে খাদ্য গুদামে মজুদ করছেন। বাহির থেকে চাল না এনে চাল কল মালিকরা যদি তাদের চাল কল গুলো সচল রাখত এর প্রভাব পড়ত ধানের বাজারে। কিন্তু সেদিকে নজর না দিয়ে বাহির থেকে চাল সংগ্রহ করে আনায় এলাকার কৃষকরা ধান ও চালের ন্যায্যমূল্য থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। বাজারে প্রতিমন ধান ৪শ টাকা ও প্রতি কেজি চাল ১৬-১৮টাকায় দরে বিক্রি হচ্ছে। সেখানে সরকারিভাবে ধান প্রতিকেজি ২৬টাকা ও চাল প্রতিকেজি ৩৬টাকা দরে নির্ধারণ হওয়ায় মিলাররা প্রতি কেজি চালে ১৮-২০টাকা মুনাফা হাতিয়ে নিচ্ছে। অন্যদিকে মিল চাতালে কর্মরত শ্রমিকরা তাদের বেকার জীবন অতিবাহিত করছেন। এ ব্যাপারে উপজেলা খাদ্যশস্য সংগ্রহ কমিটির সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ মোঃ শামসুজ্জোহা জানান, ধান সংগ্রহের ব্যাপারে কৃষকদের তালিকা প্রণয়ন চলছে। কিন্তু হ্যাস্কিং মিলের চাল মানসম্মত না হওয়ায় মিলাররা সরাসরি উপজেলার বাহির থেকে চাল সংগ্রহ করে সরকারি গুদামে মজুদ করছেন। ফলে উপজেলার কৃষকরা ধান ও চালের ন্যায্য মূল্য থেকে সরাসরি বঞ্চিত হচ্ছেন।

About Tutul Rabiul

Check Also

 প্রতিবন্ধী তাজুলের পরিবারের জীবন কাটছে অনাহারে-অর্ধাহারে!

 প্রতিবন্ধী তাজুলের পরিবারের জীবন কাটছে অনাহারে-অর্ধাহারে

সংবাদটি পড়া হয়েছে : 81 এম.জি.ছরওয়ার: নিজস্ব সংবাদদাতাঃ মিরস্বরাই, চট্রগ্রাম থেকে ফিরেঃ চট্রগ্রাম জেলার মিরস্বরাই …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!