Thursday , August 22 2019
Home / সারাদেশ / চিলমারীতে যুবকের সাথে বন্য টিয়ার মিতালী
চিলমারীতে যুবকের সাথে বন্য টিয়ার মিতালী
চিলমারীতে যুবকের সাথে বন্য টিয়ার মিতালী

চিলমারীতে যুবকের সাথে বন্য টিয়ার মিতালী

এম.জি.ছরওয়ার: 
চিলমারী (কুড়িগ্রাম) সংবাদদাতা:

কুড়িগ্রাম জেলার চিলমারী উপজেলার চিলমারী সরকারী কলেজ মোড় এলাকায় এক যুবকের সাথে টিয়া পাখির বন্ধুত্ব। সরেজমিনে দেখা যায়, তরুনের ঘাড়ে বসে বন্য টিয়া পাখিটি মিঠু-মিঠু শব্দ উচ্চারন করতে থাকে। আরো দেখা যায়, এই টিয়া পাখিটি অদ্ভুত কিছু শব্দ তার মুখ দিয়ে উচ্চারণ করতে থাকে। বার বার টিয়া পাখিটি তার বন্ধুর নাক ও ঠোটে চুম্বন করতে থাকে।

হঠাৎ করে দেখা যায়, পাখিটি কাকের ডাক, বিড়ালের ডাক, ডিমপাড়া মুরগীর ডাক, কোকিলের ডাক, কাঠবিড়ালীর ডাক সহ কটিও কটিও শব্দ বলতে থাকে। তরুন এম.জি. ছরওয়ার জানান, প্রায় দুই বছর থেকে এই টিয়া পাখিটিকে পুষে আসছেন, একটি পাখির দোকান থেকে তিনি ছোট্র টিয়া পাখির বাচ্চা ক্রয় করেন। তার পর থেকে বহু কষ্টে টিয়া পাখির বাচ্চাটাকে বিভিন্ন খাবার গম-ভূট্টা চূর্ণ, সূর্যমুখীর বীজ, কুসুম্ভ ফুলের বীজ, পাকা মরিচ, কামরাঙ্গা, আপেল, পেয়ারা সহ বিভিন্ন ফল-মুল টিয়া পাখিকে খাবার খাওয়াইয়ে পুষে আসছেন।

এম.জি.ছরওয়ার আরো জানান, পাখি সামাজিক প্রাণী হিসেবে কথা বলতে সক্ষম। তাই আমি পাখিটিকে কথা বলতে শিখানোর পূর্বে তার সাথে ভালো সম্পর্ক গড়ে তুলি। যাতে সে আমাকে বিশ্বাস করে এবং আমার ভয়েস শুনতে অভ্যস্ত হয়। প্রথম কয়েক মাস পাখিটিকে আমি যতেষ্ট পরিমান সময় দেই এবং তার সাথে মৃদু কন্ঠে কথা বলতে থাকি। প্রায় প্রতিদিন আমি টিয়া পাখির সঙ্গে খেলা করতে থাকি। কারন এই বন্য পাখিটি গোষ্টিগত জীবন এবং সামাজিক দলবদ্ধভাবে বাস করতে অভ্যস্থ। তাই পাখিটির সাথে আমি প্রচুর সময় কাটাই আর তাতেই বন্য টিয়া পাখিটির সাথে আমার ধীরে ধীরে ভালো সু-সম্পর্ক গড়ে উঠে। মোট কথা একটা শিশুকে যেভাবে কথা বলা শেখানো হয়, ঘুম পাড়ানো হয় ঠিক আমিও এই টিয়া পাখিটির সাথে একই আচারন করে আসছি। তাই আমি যখন প্রতিদিন রাতে বাসায় ফিরে আসি পাখিটি আমার গলার আওয়াজ শুনলেই দুর থেকে মিঠু-মিঠু বলে ডাকতে থাকে।

About Tutul Rabiul

Check Also

চিলমারীর বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি

সংবাদটি পড়া হয়েছে : 30 এম.জি.ছরওয়ার: চিলমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধিঃ নদ-নদীর পানি বিপদসীমার নীচ দিয়ে প্রবাহিত …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!